বন্ধুত্বের প্রমাণ দিলো ভারত, বলছে সরকার।

অবসান হলো সব জল্পনা-কল্পনার। দেশে এলো করোনার টিকা। ভারতের উপহার ২০ লাখ ডোজ টিকা নিয়ে সকালে ঢাকায় নামে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি ফ্লাইট। যা রাখা হয়েছে তেজগাঁওয়ের ইপিআই স্টোরেজে। হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাইকশিনার জানান, করোনা মোকাবিলায় এক সাথে কাজ করবে দুদেশ। আর সরকার বলছে, আবারও বন্ধুত্বের প্রমাণ দিলো ভারত।
প্রতিবেশীর উপহার পৌঁছালো বাংলাদেশে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা ‘কোভিশিল্ড’। এয়ার ইন্ডিয়ার একটি ফ্লাইটে বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ১১টার দিকে পৌঁছায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে।
বিমানবন্দর থেকে দুটি ফ্রিজার ট্রাকে করে নিয়ে যাওয়া হয় তেজগাঁওয়ের ইপিআই স্টোরেজে। ২০ লাখ ডোজই রাখা হয়েছে এই সংরক্ষণাগারে।
দুপুরে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের হাতে ভ্যাকসিন আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, এর মাধ্যমে বন্ধুত্বের প্রমাণ রাখলো ভারত।
এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, শত প্রতিকূলতার ভেতরে করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ সবার চেয়ে এগিয়ে।
২৫ থেকে ২৬ জানুয়ারির মধ্যে বাংলাদেশের কেনা ৫০ লাখ ডোজ করোনার টীকা দেশে আসার কথা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*